বুধবার, ৩রা কার্তিক, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ : ১৮ই অক্টোবর, ২০১৭ ইং

অপহরণের ১৪ দিন পরও উদ্ধার হয়নি রাজিয়া সুলতানা নিশা

চট্টগ্রামের দক্ষিণ পশ্চিম বাকলিয়া স্কুলের নবম শ্রেণীতে পড়ুয়া রাজীয়া সুলতানা নিশা নামের এক স্কুল ছাত্রীকে জোরপূর্বক অপহরণ করে একটি সংঘবদ্ধ চক্র। বাকলিয়ার মাষ্টারপুল, বউবাজার খাজা হোটেল সংলগ্ন স্থান হতে মোঃ আলমগীর হোসেন এবং নুরুল আবছার জোড়পূর্বক সিএনজি টেক্সিতে উঠাতে চাইলে নিশা গড়িমসি করতে থাকে, তখন আশেপাশের মানুষ যাতে সন্দেহ না করে আলমগীরের বোন ভুট্টু কৌশলে টেক্সি থেকে নেমে মানুষকে বলতে থাকে রাজীয়া সুলতানা নিশা রাগ করে বাসায় যেতে চাইতেছে না, তাই জোরপূর্বক নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

অসৎ উদ্দিশ্য হাসিলের লক্ষ্যে নিশাকে অপহরণ করে বলে দাবি করেন তার বাবা। স্কুল থেকে দীর্ঘ সময়পরও ফিরে না আসাতে প্রথমে ঘটনার দিন ০৭/০২/১৭ইং তারিখে বাকলিয়া থানায় সাঃ ডায়েরী নং ৩০৬ এবং পরে নিশার বাবা মোঃ নাছির উদ্দিন খালেদ বাদী হয়ে ১০/০২/১৭ ইং তারিখে একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন। মামলা নং- ১৩, নারী ও শিশু নির্যাতন আইন ধারা-৭/৩০ ১ নং বিবাদী আলমগীর হোসেন, ২নং বিবাদী মোস্তাফা আক্তার ভুট্টু ৩ নং বিবাদী নুরুল আবছার বাবুর্চি, ৪ নং বিবাদী নাছিমা বেগম (আলমগীরের মা) স্বামী : মোঃ নাছির উদ্দিন সাং- পুঁইছড়ি, ৩ নং ওয়ার্ড জসীম মেম্বারের বাড়ি, থানা- বাঁশখালী। ৫ নং বিবাদী মোঃ আনছার, পিতা-আবু সৈয়দ সাবেক মেম্বার সাং- ছনুয়া, ১নং ওয়ার্ড, থানা- বাঁশখালী, চট্টগ্রাম।

 

উল্লেখিত বিবাদীগণের পরামর্শক্রমে ও সহায়তায় দক্ষিণ পশ্চিম বাকলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীতে পড়ুয়া নিশা অপহৃত হয় বলে দাবি করেন মামলার বাদী মোঃ নাছির উদ্দিন খালেদ। নিশা অপহরণ হওয়ার পর থেকেই তার মা বারবার মূর্ছা যেতে থাকলে চট্টগ্রাম মেডিকেলে ভর্তি করা হয় এবং বর্তমানে মানসিক ভারসম্যহীন অবস্থায় আছেন। রাজীয়া সুলতানা নিশার বাবা মামলার বাদী মোঃ নাছির উদ্দীন খালেদ মেয়ের চিন্তায় অসুস্থ হয়ে চলাফেরা করতেও অক্ষম এখন।

 

ইতিপূর্বে আসামী নুরুল আবছারকে বাকলিয়া থানা পুলিশ গ্রেপ্তারপূর্বক রিমান্ডের আবেদন করে। আবছার গ্রেপ্তার হওয়াতে অন্যান্য আসামীরা গা ঢাকা দেয়। সুত্রে জানা যায়, কৌশল পাল্টিয়ে মূল আসামী আলমগীর এখন মোঃ আকবর, সাং- পুঁইছড়ি, মৌলাপাড়া, সিএনজি জাহাঙ্গীর, সাং- পুঁইছড়ি, মদিনাসন মাদ্রাসা সংলগ্ন এবং জাকির হোসেন, সাং- মৌলাপাড়া, পুঁইছড়ি, থানা-বাঁশখালী- তাদের সম্পূর্ণ তত্ত্বাবধানে রেখেছে নিশাকে। ভিকটিমকে উদ্ধার করতে বাকলিয়া থানা হতে বাঁশখালী থানাকে ১২/০২/১৭ তারিখে অধিযাচন পত্র পাঠানো হলেও ১০ দিন অতিবাহিত হয়ে গেলেও আর কোনো আসামী গ্রেপ্তার ও ভিকটিম উদ্ধার হয়নি বলে জানায় বাদী নাছির উদ্দিন খালেদ।

 

এদিকে সহপাঠী নিশা অপহরণের ঘঠনার কোনো অগ্রগতি না হওয়াতে স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা আক্ষেপ করে বলেন, দ্রুত সময়ের মধ্যে রাজিয়া সুলতানা নিশাকে আমরা ফিরে না পেলে মানববন্ধন সহ অন্যান্য কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবো।

বার্তা কক্ষ মেইল:

news.crimewatchbd24@gmail.com

বার্তা কক্ষ মুঠোফোন:

+৮৮ ০১৯ ২০০ ৯৯২৮৮

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত "ক্রাইম ওয়াচ"

Design & Devaloped BY Popular-IT.Com