বুধবার, ৮ই ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ : ২৩শে আগস্ট, ২০১৭ ইং

নীলফামারীতে আওয়ামীলীগ থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিলেন এক জেলা নেতা

মহিনুল ইসলাম সুজন, নীলফামারী প্রতিনিধি

স্বাধীনতা বিরোধী হিসেবে ফেসবুকে প্রচারণা চালানো ইউনিয়ন যুবলীগের প্রাক্তন নেতার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় দল থেকে পদত্যাগ করার ঘোষণা দিয়েছেন নীলফামারী জেলা আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা মন্ডলী ও সদর উপজেলা কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম শাহ।

 

রবিবার রাতে(১১জুন) টুপামারী ইউনিয়নের টুপামারী বাজার এলাকায় অবস্থিত নিজ বাড়িতে সাংবাদিক সম্মেলনে পদত্যাগের ঘোষণা দেন ইউনিয়নের প্রাক্তন চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম।

 

তিনি উল্লেখ করেন, আমি স্বাধীনতা উত্তর ইউনিয়ন কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক এবং স্বাধীনতা পরবর্তি সময়ে জেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি।

 

আমার অবদান রয়েছে ১৯৫২সালের মহান ভাষা আন্দোলনেও। টুপামারী ইউনিয়নে আমার আগে কেউ আওয়ামীলীগে আসেনি অথচ ফেসবুকে আমাকে স্বাধীনতা বিরোধী আখ্যা দিয়ে পিচ কমিটির সদস্য হিসেবে প্রচারণা চালানো হলো।

 

অপপ্রচার চালানো ইউনিয়ন যুবলীগের বিলুপ্ত কমিটির আহবায়ক মশিউর রহমান রতনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণে উপজেলা আ’লীগের নেতাদের দ্বারস্থ হলাম কিন্তু তারা কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করলো না।

 

আমার চাওয়া পাওয়ার কিছু নেই। কার কাছে বিচার চাইবো। আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক। এ সময় দলীয় গঠনতন্ত্র প্রদর্শণ করে দল থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দেন তিনি।

 

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থাকা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি(ভারপ্রাপ্ত) পরেশ চন্দ্র সরকার বলেন, ওই ছেলে রতন (বিলুপ্ত কমিটির আহবায়ক) আমাকেও লাি ত করেছিলো। কোন সুরাহা হয়নি। দলের উর্দ্ধতন নেতাদের শেল্টারের কারণে সে অপদস্ত করছে আমাদের।

 

এদিকে ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণে ফেসবুকে বাবার বিরুদ্ধে মিথ্যে প্রচারণা ও অপমান জনক পোস্ট দেওয়ায় ছেলে এবং সদর উপজেলা যুবলীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক আবুল কাশেম শাহ নীলফামারী থানায় তথ্য প্রযুক্তি আইনে একটি অভিযোগ দিয়েছেন।

 

জানতে চাইলে নীলফামারী সদর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) বাবুল আখতার জানান, আবুল কাশেম ও মশিউর রহমান রতন পাল্টাপাল্টি অভিযোগ দিয়েছেন। দুটোই যাচাই বাছাই করে দেখা হচ্ছে। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান ওসি।

 

এদিকে কয়েকবার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলেও ইউনিয়ন যুবলীগের বিলুপ্ত কমিটির আহবায়ক মশিউর রহমান রতন রিসিভ না করায় কোন মন্তব্য জানা যায়নি তার।

 

সংবাদ সম্মেলনে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মোকছেদ আলী, রামগঞ্জ ট্রাজেডিতে হত্যাকান্ডের শিকার ফরহাদ হোসেন ও মুরাদ হোসেনের বাবা ফারুক হক বক্তব্য দেন।

বার্তা কক্ষ মেইল:

news.crimewatchbd24@gmail.com

বার্তা কক্ষ মুঠোফোন:

+৮৮ ০১৯ ২০০ ৯৯২৮৮

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত "ক্রাইম ওয়াচ"

Design & Devaloped BY Popular-IT.Com