বুধবার, ৮ই ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ : ২৩শে আগস্ট, ২০১৭ ইং

মানুষকে বিভ্রান্ত করা হচ্ছে রামপাল বিষয়ে

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, রামপালে বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের বিষয়ে একটি মহল সুন্দরবন ধ্বংস হবে বলে ভিত্তিহীন, কাল্পনিক ও মনগড়া বক্তব্য দিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করছে।

আজ বুধবার জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তর পর্বে সরকারি দলের সদস্য মীর মোস্তাক আহমেদের প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত তিনটি জায়গার মধ্যে পরিবেশগত এবং অন্যান্য সার্বিক দিক দিয়ে সবচেয়ে সুবিধাজনক ও গ্রহণযোগ্য হওয়ায় বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের জন্য রামপালকে বেছে নেওয়া হয়েছে।

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ‘ভিশন ২০৩০’ এর ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এটা আওয়ামী লীগের রূপকল্প: ২০২১-এর প্রতিচ্ছবি। তারা ক্ষমতায় গেলে কী কী করবে রূপকল্পে তার দীর্ঘ ফর্দ দেওয়া হলেও কীভাবে কোন পদ্ধতিতে তা বাস্তবায়ন করা হবে তা স্পষ্ট নয়।

তিনি বলেন, বিএনপি তাদের রূপকল্প ২০৩০-এ যে বিষয়গুলো উল্লেখ করেছে, তার অধিকাংশই বর্তমান সরকার ইতিমধ্যে পূরণ করেছে। আগামী অর্থবছরে বাকি কাজগুলো শেষ করা হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, বিগত সময়ে বিএনপি তাদের শাসনামলে অনিয়ম-দুর্নীতি, জঙ্গি পৃষ্ঠপোষকতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। তারপর ক্ষমতার বাইরে থেকে জ্বালাও-পোড়াওসহ যে নেতিবাচক ইমেজ তৈরি করেছে তা কাটিয়ে উঠে এতটা জনআস্থা অর্জন তাদের জন্য কঠিন চ্যালেঞ্জ।

বিএনপির রাজনীতির সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তারা জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস, গ্রেনেড হামলা, সাংসদ হত্যাসহ নানা ধরনের সন্ত্রাসী কাজে পারদর্শী। তারা আবার জনগণকে কী আশার বাণী শোনাবে? বিএনপির শাসনামলে পাঁচ বছরমেয়াদি পরিকল্পনা গ্রহণ করেনি। দুই-তিন বছরের পরিকল্পনা নিয়ে তারা রাষ্ট্র চালিয়েছে।

আওয়ামী লীগের রূপকল্প ২০২১ ও ২০৪১-এর প্রসঙ্গ টেনে সরকারপ্রধান বলেন, ‘আমাদের নির্বাচনী ইশতেহারের আলোকে রূপকল্প ২০২১ বাস্তবায়নের শেষ পর্যায়ে। দীর্ঘমেয়াদি প্রেক্ষিত পরিকল্পনা প্রণয়ন করে আমরা ২০৪১ সালে বাংলাদেশকে উন্নত দেশ হিসেবে গড়ে তোলার ঘোষণা দিয়েছি।’

বার্তা কক্ষ মেইল:

news.crimewatchbd24@gmail.com

বার্তা কক্ষ মুঠোফোন:

+৮৮ ০১৯ ২০০ ৯৯২৮৮

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত "ক্রাইম ওয়াচ"

Design & Devaloped BY Popular-IT.Com