রবিবার, ৫ই ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ : ২০শে আগস্ট, ২০১৭ ইং

রাণীনগরে বিদ্যুৎ বিল বিতরন কারীর অবহেলায় অতিরিক্ত জরিমানা গুনতে হবে গ্রাহকদের!

একেএম কামাল উদ্দিন টগর, নওগাঁ প্রতিনিধি

নওগাঁ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির রাণীনগর সাব জোনাল অফিসের ম্যাসেঞ্জারের (বিল বিতরন কারী) অবহেলায় এপ্রিল ও মে এই দু’মাসের বকেয়া বিলের সাথে অতিরিক্ত জরিমানার টাকা গুনতে হবে বিদ্যুৎ গ্রাহকদের । একই সাথে ৩ মাসের বিল পরিশোধ নিয়ে শ্রমজীবি ও খেটে খাওয়া মানুষরা পরেছেন চরম বিপাকে । এনিয়ে গ্রাহকদের মধ্যে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে ।

 

নওগাঁ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির রাণীনগর সাব জোনাল অফিস সুত্রে জানাগেছে, অবাদ ও সুষ্ঠু ভাবে প্রতি মাসের বিল গ্রাহকদের নিকট থেকে উত্তোলনের জন্য মিটার রিডাররা গ্রাহকদের বাড়ী বাড়ী গিয়ে বিল করে নিয়ে আসেন ।এর পর অফিস থেকে বিল প্রস্তুত করে ম্যাসেঞ্জারের মাধ্যমে বিলের কাগজ গ্রাহকদের হাতে হাতে পৌছে দেয়া হয় । সেই মোতাবেক গত এপ্রিল মাসের বিদ্যুৎ বিল ওই মাসের ২৬ তারিখে প্রস্তুুত করা হয় । এবং মে মাসের বিল ওই মাসের ২৬ তারিখে প্রস্তুুত করা হয় । এবং এপ্রিল মাসের বিল পরিশোধের জন্য সময় সিমা বেধে দেয়া হয় ২৫ মে এবং মে মাসের বিল পরিশোধের শেষ সময় বেধে দেয়া হয় ১৪ জুন ।

 

কিন্তু দু’মাসের নির্ধারিত সময় অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত রাণীনগর উপজেলার জেঠাইল ও জামাল কুড়ি গ্রামের প্রায় ১০৮ জন গ্রাহকের হাতে পৌছেনি বিদ্যুৎ বিলের কাগজ । ফলে নির্ধারিত সময় পার হয়ে যাওয়ায় দু’মাসের বিলের সাথে ১০% হারে অতিরিক্ত জরিমানার টাকা দিতে হবে গ্রাহকদের । গতকাল সোমবার দুপুরে জেঠাইল গ্রামের জালাল উদ্দীন,আব্দুল খালেক,সাহাজুল ইসলামসহ অনেক গ্রাহকরা জানান,এপ্রিল এবং মে মাসের বিদ্যুৎ বিলের কাগজ আমরা এখনো পাইনি। তাই নির্ধারিত সময়ে বিল পরিশোধও করতে পারিনী ফলে প্রতিটি বিলে ১০% হারে জরিমানাসহ বিল পরিশোধ করতে হবে। কে নিবে এই জরিমানার দায়ভার ? তাছাড়া গ্রামের খেটে খাওয়া ও শ্রমজীবি মানুষরা কিভাবে একসাথে ৩ মাসের বিল দেবে? তারা সমিতির কিন্তি চালাবে না সংসারের চাহিদা মেটাবে? । এনিয়ে গ্রাহকদের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে ।

 

 

এব্যাপারে নওগাঁ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির রাণীনগর সাব জোনাল অফিসের বিলিং সুপার ভাইজার আকলিমা ইয়াসমিন জানান, ওই এলাকায় বিদ্যুৎ বিলের কাগজ বিতরনের কাজে নিয়োজিত রফিকুল ইসলাম দু’মাসেই যথা সময়ে বিদ্যুৎ বিলের কাগজ নিয়ে গেছেন । কিন্তু কি কারনে বিলের কাগজ গ্রাহকদের মাঝে বিতরন করেননি তা আমি বলতে পারছিনা ।

এব্যাপারে বিলের কাগজ বিতরনকারী রফিকুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তাকে না পাওয়ায় কারন জানা সম্ভব হয়নি।

 

এব্যাপারে রাণীনগর সাব জোনাল অফিসের এজিএম এর সাথে যোগাযোগ করে তাকেও না পাওয়ায় নওগাঁ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জিএম এনামুল হক এর সাথে কথা হলে তিনি জানান, ঘটনাটি আমি শুনেছি এবং এজিএম রাণীনগরকে বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখার জন্য বলা হয়েছে । তাছাড়া ভুক্তভোগিদের জরিমানার অতিরিক্ত ১০% টাকা দ্বায়ীত্বরত ম্যাসেঞ্জারের (বিলের কাগজ বিতরণকারী)কাছ থেকেই আদায় করে গ্রাহকদের দেয়াসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি ।#

বার্তা কক্ষ মেইল:

news.crimewatchbd24@gmail.com

বার্তা কক্ষ মুঠোফোন:

+৮৮ ০১৯ ২০০ ৯৯২৮৮

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত "ক্রাইম ওয়াচ"

Design & Devaloped BY Popular-IT.Com