রবিবার, ৭ই কার্তিক, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ : ২২শে অক্টোবর, ২০১৭ ইং

রোহিঙ্গা সংকট: ফের বৈঠকে বসছে নিরাপত্তা পরিষদ

গত ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইনে দেশটির সেনাবাহিনীর তথাকথিত ক্লিয়ারেন্স অপারেশন শুরু হওয়ার পর এ পর্যন্ত ৪ লাখ ৩০ হাজারের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। নিহত হয়েছে কয়েক হাজার। জাতিসংঘ মিয়ানমার সেনাবাহিনীর এ অভিযানকে জাতিগত নিধন হিসেবে আখ্যায়িত করেছে। এ সংকট নিরসনে জাতিসংঘ ও ক্ষমতাধর দেশগুলোর ওপরও চাপ বাড়ছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফিরিয়ে নেয়ার জন্য প্রতিবেশী দেশটির ওপর চাপ প্রয়োগ করতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। কূটনৈতিক তৎপরতার ফলে রাখাইন রাজ্যে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর গণহত্যার বিরুদ্ধে বিশ্বব্যাপী জনমত গড়ে তুলতে বাংলাদেশ অনেকখানি সফল হয়েছে।

সেই ফলশ্রুতিতে রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে ফের বৈঠকে মিলিত হচ্ছে জাতিসংঘের সবচেয়ে ক্ষমতাধর সংস্থা নিরাপত্তা পরিষদ। বৈঠক আয়োজনের অন্যতম উদ্যোক্তা যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন ও ফ্রান্স। আগামী সপ্তাহে এ বৈঠক হতে যাচ্ছে। এক মাসের কম সময়ের মধ্যে তৃতীয়বারের মতো মিলিত হচ্ছে সংস্থার ১৫ সদস্য। এবারের বৈঠকে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে কঠোর চাপ আসতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা ও মানবাধিকার গোষ্ঠীসহ আন্তর্জাতিক মহলের অনেকেই মিয়ানমারের গণহত্যার কড়া সমালোচনা করছে। পাশাপাশি, বিদেশি সংবাদমাধ্যমগুলো মিয়ানমারের বর্বরতার চিত্র তুলে ধরছে। এসব সমালোচনা সত্ত্বেও মিয়ানমার সেনাবাহিনী রোহিঙ্গাদের ওপর দমন-পীড়ন বন্ধ করেনি। ফলে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে অবরোধ আরোপসহ নানান ব্যবস্থা গ্রহণ করলেই কার্যকর কিছু হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

এএফপি জানায়, পরিষদের স্থায়ী-অস্থায়ী ৭ সদস্য ফ্রান্স, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, মিসর, কাজাখস্তান, সেনেগাল ও সুইডেন রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে আলোচনার আহ্বান জানিয়েছে। বৈঠকে রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে নিরাপত্তা পরিষদে ব্রিফ করতে জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। নিরাপত্তা পরিষদের সভাপতি ইথিওপিয়া জানায়, আলোচনার দিনক্ষণ ঠিক করতে শলা-পরামর্শ চলছে।

বার্তা কক্ষ মেইল:

news.crimewatchbd24@gmail.com

বার্তা কক্ষ মুঠোফোন:

+৮৮ ০১৯ ২০০ ৯৯২৮৮

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত "ক্রাইম ওয়াচ"

Design & Devaloped BY Popular-IT.Com