সোমবার, ১০ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ : ২৩শে এপ্রিল, ২০১৮ ইং

কোন যানবাহন না দেখে ফিটনেস ইস্যু করা যাবে না, চেয়ারম্যান বিআরটিএ


বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি(বিআরটিএ) খুলনা বিভাগীয় কার্যালয়ের দ্বিতীয় তলা ভবনের উদ্বোধন ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের শুদ্ধাচার বিষয়ক সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 

 

 

শনিবার বিআরটিএ’র খুলনা বিভাগীয় কার্যালয়ের আয়োজনে ভবন উদ্বোধনসহ উক্ত সভা অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ১১ টায় দ্বিতীয় তলা ভবনের শুভ উদ্বোধন করেন অতিরিক্ত সচিব ও চেয়ারম্যান বিআরটিএ’র মোঃ মশিয়ার রহমান।

 

 

 

দ্বিতীয় তলা ভবনের শুভ উদ্বোধন শেষে দুপুর ১২ টায় বিআরটিএ’র খুলনা বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের শুদ্ধাচার বিষয়ক সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক সভা বিভাগীয় উপ-পরিচালক মোঃ জিয়াউর রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্হিত ছিলেন, অতিরিক্ত সচিব ও বিআরটিএ’র চেয়ারম্যান মোঃ মশিয়ার রহমান।

 

 

 

 

অনুষ্ঠিত সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, বিআরটিএ’র খুলনা সার্কেলের সহকারি পরিচালক মোঃ আবুল বাশার। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্হিত থেকে বক্তব্য রাখেন, বিআরটিএ’র পরিচালক (অপারেশন) শীতাংশু শেখর বিশ্বাস, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন ফেডারশনের দক্ষীণ বঙ্গের সহ-সভাপতি আব্দুর রহিম বক্স দুদু ও খুলনা ট্রাক মালিক সমিতির সাধারন সম্পাদক বাবুল আক্তার।

 

 

 

 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য বিআরটিএ’র চেয়ারম্যান বলেন, দেশের সড়ক দূঘর্টনা কি ভাবে কমিয়ে আনা যায় সে লক্ষ্যে সরকার নিরালত ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বর্তমান সরকারের আমলে বিআরটিএ ডিজিটালে রুপান্ততারিত হয়েছে। জনগনের এখন আর দিনের পর দিন বিআরটিএতে হাটতে হয় না। দিনের কাজ দিনে করে বাড়ি ফিরতে পারে।

 

 

 

 

বিআরটিএ’র প্রতি জনগনের আস্তা ফিরে এসেছে। এ সেক্টর কে আমরা আরও সু-শৃঙ্খল করার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছি। তিনি উপস্হিত কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের উদ্দেশ্য বলেন, আপনারা প্রজাতন্ত্রের কর্মচারি আপনারা যে বেতন পান সেটা জনগনের কাছ থেকে আসে। সে জন্য জনগনের সেবা আন্তরিকতার সহিত করবেন। তাদের সাথে দূ’ব্যবহার করবেন না।

 

 

 

যেটা আইনের মধ্য পড়ে সে কাজ গুলি করবেন আর যেটা আইনের মধ্যে পড়ে না সেটা তাদের ভাল ভাবে বুঝিয়ে বলবেন। তিনি আরও বলেন, কোন যানবাহন সরেজমিনে না দেখে ফিটনেস ইস্যু করবেন না। সভায় বিআরটিএ বিভিন্ন সার্কেলের সহকারি পরিচালকগনের মধ্যে বক্তব্য রাখেন,সাতক্ষীরার প্রকৌশলী তানভীর আহমেদ, যশোরের সৈয়দ মেজবাহ্ উদ্দীন, চুয়াডাঙ্গা ও মেহেরপুরের মোঃ আতিয়ার রহমান, ঝিনাইদহের বিলাস কুমার সরকার, মাগুরার মাহফুজুর রহমান ও কুষ্টিয়ার মোঃ হান্নান সরদার। অনুুষ্ঠানে ২০১৭ সালের শ্রেষ্ঠ কর্মকর্তা ও কর্মচারি পুরস্কার প্রদান করা হয়। শ্রেষ্ঠ কর্মকর্তার পুরস্কার পেয়েছেন বিআরটিএ যশোর সার্কেলের সহকারি পরিচালক সৈয়দ মেজবাহ্ উদ্দীন ও শ্রেষ্ঠ কর্মচারির পুরস্কার পেয়েছেন কুষ্টিয়া সার্কেলের অফিস সহকারি স্বপন কুমার দাশ।

 

 

 

 

 

সভায় ইলেকট্রনিক্স ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিক সহ বিআরটিএ’র খুলনা বিভাগের ১০ জেলার কর্মকর্তা-কর্মচারিবৃন্দ উপস্হিত ছিলেন।


শেখ আমিনুর হোসেন,সাতক্ষীরা ব্যুরো চীফ

© ২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত "ক্রাইম ওয়াচ"